Add Recipe

জেনে নিন অ্যাপ্রিকটের গুনাগুন

অ্যাপ্রিকট একটি অতি আশ্চর্যজনক উপকারী ফল। এর গাছের নাম অ্যাপ্রিকট ট্রি বা খুবানি গাছ।এটি মূলত চীনে সর্বপ্রথম চাষ করা হয়েছিল। আমাদের দেশে যেহেতু শুকনো অ্যাপ্রিকট সহজলভ্য, তাই এক নজরে জেনে নিন এই আশ্চর্য ফলের পুষ্টিগুণ-
প্রতি ১০০ গ্রামে রয়েছে
ক্যালোরি ২৪১ কিলোক্যালোরি
লিপিড ০.৫ গ্রাম
কোলেস্টেরল ০ মিলিগ্রাম
সোডিয়াম ১০ মিলিগ্রাম
পটাশিয়াম ১,১৬২ মিলিগ্রাম
শর্করা ৬৩ গ্রাম
খাদ্যতালিকাগত ফাইবার ৭ গ্রাম
চিনি ৫৩ গ্রাম
প্রোটিন ৩.৪ গ্রাম
ভিটামিন এ ৩,৬০৪ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিট
ভিটামিন সি ১ মিলিগ্রাম
ক্যালসিয়াম ৫৫ মিলিগ্রাম
লোহা ২.৭ মিলিগ্রাম
ভিটামিন ডি ০ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিট
পাইরিডক্সিন ০.১ মিলিগ্রাম
সায়ানোকোবালেমিন ০ মাইক্রো গ্রাম
ম্যাগনেসিয়াম ৩২ মিলিগ্রাম
সূত্রঃUSDA

ক্যালসিয়াম ও পটাশিয়াম সমৃদ্ধ
আমেরিকান অ্যাক্যাডেমি অফ পেডিয়াট্রিক্স এর মধ্যে দাঁত এবং হাড়ের গঠন ও বিকাশে ক্যালসিয়াম খুবই প্রয়োজনীয়। তাছাড়া পর্যাপ্ত পটাশিয়াম ছাড়া ক্যালসিয়ামের শোষণ ব্যাহত হয় ।আর এই আশ্চর্য ফলটিতে একসাথে ক্যালসিয়াম পটাসিয়াম দুটোই পর্যাপ্ত আছে’
ভিটামিনের সমৃদ্ধ উৎস
অ্যাপ্রিকটে প্রচুর ভিটামিন এ আছে, যা রেটিনল নামে পরিচিত। এটা ফ্যাটে দ্রবণীয় এবং দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। ১০০ গ্রাম শুকনো অ্যাপ্রিকট আপনাকে দৈনিক চাহিদার ১২% ভিটামিন-সি ১২% ভিটামিন-এ এর যোগান দিবে।
অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের প্রভাব
পাকা অ্যাপ্রিকট অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের প্রাকৃতিক উৎস। রোজ খেলে সেটা সময়ের সাথে জমে যাওয়া টক্সিনকে শরীর থেকে বের করে দেয়। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কোষের ক্ষতিকারক ফ্রি রাডিকেল ধ্বংস করে।
ত্বকের জন্য ভালো
ভিটামিন সি ও এ এবং ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট সুস্থ ও ভালো ত্বক সুনিশ্চিত করে। অ্যাপ্রিকটের মধ্যের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বয়সের ছাপ পড়া কমায়। রোজ ৫-৬টি অ্যাপ্রিকট খাওয়ার অভ্যাস করুন।
ফাইবারের সমৃদ্ধ
শুকনো কিংবা টাটকা অ্যাপ্রিকট ডায়াটারি ফাইবারের উত্তম উৎস। অ্যাপ্রকটের ভেতরের রেটিনল ফ্যাটে দ্রবণীয় সুতরাং এই ফল শরীরের মধ্যে সহজেই দ্রবীভূত হয়। এই কারণে, গুরুত্বপূর্ন পুষ্টি উপাদান সহজেই শরীরের মধ্যে শোষিত হয়। অ্যাপ্রিকট বিপাকীয় হারকে গতিশীল করার মাধ্যমে ওজন কমাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। এমনকি এটি কোষ্ঠকাঠিন্যের প্রাকৃতিক চিকিৎসা হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতা
অ্যাপ্রিকটে নন-হেম আয়রন থাকে। এইধরনের আয়রন শরীরে শোষিত হতে সময় নেয় এবং অনেক বেশীক্ষণ থাকে। এটা রক্তাল্পতার প্রতিরোধ করে। এর সাথে সামান্য ভিটামিন সি নেওয়া হলে এটা নন-হেম আয়রনের উত্তম শোষণ নিশ্চিত করে।
হৃৎপিণ্ডের সুস্থতা বজায় রাখে
অ্যাপ্রিকট শরীরের ক্ষতিকারক কোলেস্টেরল কমায় ও হৃৎপিণ্ডকে সুরক্ষিত রাখে। একই সাথে, এটা শরীরে উপকারি কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায়। এই ফলের পটাশিয়ামের পরিমাণ শরীরে ইলেক্ট্রোলাইটের মাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখার সাথে হৃদপেশীকে সুস্থ রাখে।
দেখলেন-তো অ্যাপ্রিকটের কতটা উপকারিতা। তাহলে আজ থেকে আপনার খাদ্য তালিকায় যোগ করুন অ্যাপ্রিকট।

You May Also Like

Leave a Review

Your email address will not be published. Required fields are marked *

X
Have no product in the cart!
0